সেন্টমার্টিন দ্বীপে যাওয়া যাবে গ্রীনলাইনের জাহাজে

0 115

সেন্টমার্টিন এখন পর্যটকদের জন্য উন্মুক্ত । সেন্টমার্টিন দ্বীপে যাওয়া যাবে গ্রীনলাইনের জাহাজে ।   তাই সমুদ্র প্রেমীদের মাঝে শুরু হয়ে গেছে তোড়জোড়। বন্ধুবান্ধব নিয়ে হোক অথবা পরিবার নিয়ে, কিংবা প্রিয়জনের হাতটা ধরে অথবা একদম একা একা ভ্রমণ, সমুদ্র যে কাউকেই নিরাশ করে না। নিজের বিশালতার মাঝে সে স্থান দেয় সবাইকে। আর এমন বিশালতার কাছে নিজেকে বিলীন করে দিতে আমাদের জন্য সবচেয়ে দারুণ জায়গা সেন্টমার্টিন। নামটা মনে আসতেই সেই নীল শান্ত জলরাশির কথা মনে আসে যার মাঝে যেন খনির মতো লুকিয়ে আছে শান্তি।

সমুদ্রপ্রেমীদের জন্য সুখবর বটে। ২৩ নভেম্বর থেকে সমুদ্রে গ্রীনলাইন পরিবহনের জাহাজটি আবার চলতে শুরু করবে। টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিনগামী জাহাজগুলোর মাঝে এটাই সবচেয়ে দ্রুতগামী। আপনি ঢাকা থেকে সরাসরি গ্রীনলাইন পরিবহনের আওতায় সেন্টমার্টিন পর্যন্ত যেতে পারেন। আবার ঢাকা থেকে অন্য বাসে টেকনাফ গিয়ে গ্রীনলাইনের জাহাজের সুবিধাটি নিতে পারেন। আপনার ভ্রমণ সুবিধার্থে জানিয়ে দিচ্ছি বাস এবং জাহাজের তথ্যাদি-

ভাড়াঃ

ঢাকা- টেকনাফ গ্রীনলাইন এসি বাস ভাড়া ১৭০০ টাকা (ইকোনমি)

টেকনাফ- সেন্টমার্টিন জাহাজ ভাড়া নিচতলায় ৬৫০ টাকা এবং ২য় তলায় ৮০০ টাকা।

সময়সূচীঃ

ঢাকা থেকে টেকনাফের উদ্দেশ্যে গ্রীনলাইনের বাস ছাড়বে সন্ধ্যা ৭ টায়।

টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিনের উদ্দেশ্যে গ্রীনলাইনের জাহাজ ছাড়বে সকাল ৯ টায়।


গুগল ম্যাপে দেখে নিন সেন্টমার্টিনের অবস্থান।

তাহলে আর দেরি নয়। ব্যাগ গুছিয়ে এবার রওনা দিন। তবে রোহিঙ্গা ইস্যুটি ভুলে যাবেন না। নিজের জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি সাথে রাখুন। একই সাথে আবহাওয়ার ব্যাপারটিও খেয়াল রাখুন। সমুদ্রে যাত্রা আবহাওয়ার উপর অনেক নির্ভরশীল। যাওয়ার আগে গ্রীনলাইন পরিবহনের হটলাইনে ফোন করে জেনে নিন সমুদ্রের অবস্থা এবং যেদিন যাচ্ছেন সেদিন জাহাজ চলছে কিনা। নিরাপদ ভ্রমণের জন্য নিজে সচেতন হোন, আপনার নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রশাসনকে সহযোগিতা করুন। শুভ ভ্রমণ।

মন্তব্য
Loading...