দেশের ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথের ব্যবহার ৫০০ জিবিপিএস ছাড়িয়েছে

0 75

দেশের ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথের ব্যবহার ৫০০ জিবিপিএস ছাড়িয়েছে। ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে এই ল্যান্ডমার্ক অতিক্রম করে তা ৫২৬ জিবিপিএসে পৌঁছায়। এখন এটি ৫৪০ জিবিপিএস হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

চলতি বছরের জুনেই চারশ জিবিপিএস পেরোনোর পর মাত্র ছয় মাসের মধ্যে আরও একশ জিবিপিএস ইন্টারনেট ব্যান্ডউথের ব্যবহার বৃদ্ধি পাওয়াকে ডিজিটাইজেশনের পথে বড় একটি বিষয় মনে করা হচ্ছে।

এর আগে দেশে তিনশ জিবিপিএস পেরোয় গত বছরের ডিসেম্বরে। তবে দুইশ জিবিপিএস থেকে তিনশতে আসতে এক বছরের মতো সময় লাগে।

দেশের ইন্টারনেট সেবা দাতাদের সংগঠন আইএসপিএবি এর সভাপতি এম.এ. হাকিম টেকশহরডটকমকে জানান, দেশে এখন ব্যান্ডউইথের ব্যবহার ৫৪০ জিবিপিএসের মতো হতে পারে। এরমধ্যে ৩৮৫ জিবিপিএস ব্রডব্যান্ডে যায় বাকিটা মোবাইল ইন্টারনেট।

৫৪০ জিবিপিএসের মধ্যে ৪০ শতাংশ আসে আইটিসিগুলো হতে অার বাকিটা বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবল কোম্পানি মিটিয়ে থাকে বলে জানান এই ইন্টারনেট ব্যবসায়ী।

হিসাব অনুয়ায়ী বর্তমানে মোট ব্যবহৃত ব্যান্ডউথের মধ্যে মাত্র ৩০ শতাংশ মাত্র ব্যবহার হচ্ছ মোবাইলে মাধ্যমে। যদিও কয়েকবছর আগেও মোবাইলের মাধ্যমে মাত্র দশ শতাংশ ব্যান্ডউইথ ব্যবহার হয়েছে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, দেশে থ্রিজি’র প্রচলন শুরু হওয়ার পর থেকে ইন্টারনেট ডেটার ব্যবহার রাতারাতি বাড়তে শুরু করে। সামনে ফোরজি চালু হলে, ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথের ব্যবহার আকাশচুম্বি হয়ে যাবে বলেও মনে করছেন কেউ কেউ।

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের হিসাব বলছে, নভেম্বর পর্যন্ত দেশে আট কোটি দুই লাখ ইন্টারনেট সংযোগ আছে যার মধ্যে সাত কোটি ৪৩ সংযোগ মোবাইল ফোনের মাধ্যমে।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, সাম্প্রতিক কয়েক বছরে দেশে ইন্টারনেট সংযোগ লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। আর সে কারণেই ইন্টারনেট ব্যন্ডউইথের ব্যবহার বৃদ্ধির হারও আগের যে কোনো সময়ের চেয়ে বেশি।

তাছাড়া দেশে অনেক ডিজিটাল সেবা চালু হয়েছে যা কেবল ইন্টারনেট ব্যবহার করেই পাওয়া সম্ভব। সরকারের অনেক সেবাও এখন ইন্টারনেটর মাধ্যমে পাওয়া যাচ্ছে। ফলে ইন্টারনেট গ্রাহক এবং ব্যবহার দুই-ই বাড়ছে।

মন্তব্য
Loading...